home top banner

স্বাস্থ্য টিপ

দুর্বলতা কাটিয়ে উঠুন সহজ কিছু উপায়ে
১১ জানুয়ারী, ১৭
Tagged In:  weakness  physically weak  
  Viewed#:   5061

get-rid-of-weakness

দুর্বল ও ক্লান্ত অনুভব করা খুবই সাধারণ একটি সমস্যা। তখন চোখগুলো এমন ভারী  হয়ে আসে যে সাধারণ কাজটাও করা যায়না। যদি প্রতিদিনই এই সমস্যা হয় তাহলে কী হবে? আপনার উৎপাদনশীলতা কমে যাবে এবং আপনার পারফরমেন্সের উপর প্রভাব পড়বে। এছাড়াও এটি কিছু অন্তর্নিহিত রোগকেও নির্দেশ করে। কিন্তু অনেক রোগীদের ক্ষেত্রেই রক্ত পরীক্ষায় তেমন কিছু ধরা পড়েনা বলে ডাক্তার বলেন যে, দুর্বলতার কারণে এমন হচ্ছে।

তাহলে তখন কি করা উচিৎ গ্লুকোজ বা এনার্জি পিল বা এনার্জি ড্রিংক পান করা উচিৎ? গ্লুকোজ আসলে সব সময় ভালো সমাধান নয়। দুর্বলতা কাটিয়ে এনার্জি লাভ করার অনেক উপায় আছে যা খুব কঠিন কিছু নয়। চলুন তাহলে জেনে নিই দুর্বলতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার সহজ কিছু উপায়।

১। আপনি কি খাচ্ছেন তা খেয়াল করুন
সপ্তাহে এক বারের বেশি পিজা বা বার্গার অর্ডার দেয়ার পূর্বে দ্বিতীয়বার ভাবুন। এর চেয়ে মায়ের হাতের চাপাতি/রুটি এর সাথে সবজি ও সালাদ দিয়ে খেয়ে নিন, যা পনির ও মেয়নেজ এ পরিপূর্ণ পিজা ও বার্গারের চেয়ে অনেক বেশি এনার্জি দিতে পারবে। সবসময় স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন এবং ফিট থাকুন।

২। শরীর নাড়াচাড়া করুন
যেকোন ধরণের শারীরিক কাজের সাথে যুক্ত হোন। ফিট থাকার জন্য জিমে যেতে হবে এমন কোন কথা নেই। জিমে যাওয়া ছাড়াও আরো অনেক ব্যায়াম আছে যেমন- সাঁতার, হাঁটা, ব্যাডমিন্টন খেলা, নাচা, ইয়োগা ইত্যাদি যা আপনাকে ফিট থাকতে সাহায্য করবে। আপনার পছন্দের কাজটি বেছে নিন এবং প্রতিদিন ৩০ মিনিট সেই কাজে মনোযোগ দিন।

৩। মস্তিষ্ককে শিথিল হতে দিন
যদি আপনার কোন স্বাস্থ্যগত সমস্যা না থাকে তাহলে আপনার দুর্বলতার কারণ আপনার মন। আপনার মন ও মস্তিষ্কের শিথিল হওয়া প্রয়োজন। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই আপনার কাজ শেষ করার চেষ্টা করুন। বন্ধুদের সাথে খেলাধুলায় অংশ নিন, সহকর্মীদের সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরি করুন, পরিবারের সাথে সময় ব্যয় করার চেষ্টা করুন এবং সবসময় হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন। এই ছোট ছোট কাজগুলোই আপনাকে সতেজ থাকতে এবং মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করবে।

৪। শখের কাজ করুন
আপনি সত্যিই পছন্দ করেন এমন কোন কাজ করুন। এটা হতে পারে গিটার বাজানো, পিয়ানো শেখা, বই পড়া, ছবি আঁকা, গান শুনা ইত্যাদি। আপনি করতে ভালবাসেন এমন কোন কাজ করলেই আপনি এনার্জি পাবেন।

৫। ফল খান
বেশীরভাগ এনার্জি ড্রিঙ্কই চিনিতে পরিপূর্ণ থাকে যা শরীরের জন্য ভালো নয়। নিয়মিত সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করলে কিডনি ও লিভারের উপর অধিক চাপ পড়ে। তাই ফল খাওয়াই হচ্ছে সবচেয়ে নিরাপদ, এর পাশাপাশি প্রচুর ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার, পানি, সবুজ শাকসবজি ও সালাদ খাওয়া  উচিৎ।


তথ্যসূত্র :practo

Please Login to comment and favorite this Health Tip
Next Health Tips: প্রতিদিন একটু বাদাম
Previous Health Tips: দীর্ঘক্ষণ প্রস্রাব আটকে রাখলে যেসব সমস্যা হতে পারে

আরও স্বাস্থ্য টিপ

আপনার ঝিমুনি আসার কারণগুলো কী?

আপনার ঝিমুনি আসার কারণগুলো কী?আপনি কী প্রায়ই অলস, ক্লান্ত বা শক্তি কম অনুভব করেন? কেন এমন অনুভব হয়? আপনার এমন অনুভূতির কারণ হতে পারে স্ট্রেস, একঘেয়েমি, সুষম খাদ্যের অভাব বা  ইনসমনিয়া। সাধারণত রাতের ভালো ঘুমই এর প্রতিকার। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে ঝিমুনি আসার  কারণ হতে পারে মারাত্মক কোন... আরও দেখুন

গর্ভাবস্থায় শিশুর নড়াচড়ার বিষয়ে জানুন

প্রতিটা হবু মা তাঁর গর্ভের সন্তানের অস্তিত্বের অনুভূতি টের পান যখন গর্ভস্থ শিশু পা ছোঁড়াছুড়ি করে। শিশুর এই নড়াচড়াই তাঁর বৃদ্ধি ঠিক মত হচ্ছে এটার ইঙ্গিত বহন করে। যদিও শিশু মায়ের গর্ভে থাকাকালীন নড়াচড়া এবং  লাথি মারা ছাড়াও অন্যান্য কাজও করে থাকে যেমন – ঘুমানো, খেলা করা, হামি দেয়া,... আরও দেখুন

মধু-দারুচিনির মিশ্রনের উপকারিতা জানেন তো?

আমাদের দৈনিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দুটি উপাদান হলো মধু এবং দারুচিনি। রান্নার মশলা হিসেবে দারুচিনি বেশ পরিচিত। আর মধুও আপন গুণে গুণান্বিত। ওষধ হিসেবে এই দুটি প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে। কোলেস্টোরল বাড়ছে নিয়ন্ত্রণহীন ভাবে? কিংবা বাতের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন? এই সব সমস্যার সমাধান পাবেন... আরও দেখুন

রোজকার যে অভ্যাসগুলো আপনার হাঁটু ব্যথা বাড়িয়েই চলেছে!

দিনের পর দিন আপনার হাটুর ব্যথা কি বেড়েই যাচ্ছে? এর পেছনে অনেক কারণ থাকতে পারে কিন্তু বেশ কিছু সাধারণ কারণ নিয়ে আজ আমরা কথা বলবো। এগুলোর মধ্যে কোন একটা যদি আপনি করে থাকেন,তবে সময় এসেছে সেসব বন্ধ করার। চলুন জেনে আসা যাক কারণগুলো- ভারী ব্যাগ বহন করা ব্রিটিশ কায়রোপ্র্যাকটিক এসোসিয়েশনের মতে,... আরও দেখুন

খাওয়ার পরিমাণ কমান ৮টি কৌশলে

অনেক দিন ধরে ভাবছেন ডায়েট শুরু করবেন, কিন্তু পারছেন না। আবার নানান ঝামেলা করে শুরু করলেন ডায়েট। কিন্তু খাবার দেখলে ভুলে যাচ্ছেন ডায়েটের কথা। যারা খেতে পছন্দ করে, তাদের জন্য খাবার কম খাওয়াটা বেশ কষ্টকর। এধরনের মানুষের খাবারের প্রতি একধরনের আসক্তি কাজ করে। যার কারণে খাবার খাওয়া ছাড়তে পারে না... আরও দেখুন

হৃদরোগের ঝুঁকি কমানোর সবচেয়ে ভালো একটি উপায়

আপনি কী দীর্ঘ সময় বসে কাটান? তাহলে আপনার সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। কারণ দীর্ঘক্ষণ বসে কাটালে কার্ডিওভাস্কুলার ডিজিজ হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। গবেষকদের মতে প্রতি আধা ঘন্টা পর পর ২ মিনিটের জন্য হেঁটে আসলে ফ্যাটি এসিডের মাত্রা কমে। ফ্যাটি এসিড ধমনীতে বাঁধার সৃষ্টি করে।   গবেষণায় জানা গেছে... আরও দেখুন

healthprior21 (one stop 'Portal Hospital')