home top banner

স্বাস্থ্য টিপ

ফাটবে না গোড়ালি
১৪ জানুয়ারী, ১৬
Tagged In:  dry feet  cracked feet care  leg care  
  Viewed#:   2508

dry-feet

নরম বিছানা ছেড়ে মেঝেতে পা দিয়েই বিপত্তি। ইশ্! ফেটে গেছে পায়ের গোড়ালি। ব্যথায় কোঁচকানো মুখ নিয়ে ভাবছেন, কীভাবে যত্ন নেওয়া যায় পায়ের। মুখ কিংবা হাত-পায়ের যত্ন তো বেশ নিচ্ছেন। পায়ের গোড়ালি দুটো মনোযোগ পাচ্ছে না একদমই।
শীতকালের পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়াটা খুব পরিচিত একটি সমস্যা।

যে কারণগুলোতে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়, তা হলো—

* শুষ্ক আবহাওয়া। অর্থাৎ যে সময়ে প্রকৃতিতে আর্দ্রতার ভাব কমে আসে আর ধুলা ওড়ে বেশি। তখন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অভাবে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়।

* সারা বছর অতিরিক্ত গরম পানিতে গোসল, অপরিচ্ছন্ন পানি ব্যবহার করা, দিনের কাজ শেষে পা না ধুয়ে ঘুমিয়ে যাওয়া, ফেটে যাওয়া পায়ের চামড়া টেনে উঠিয়ে ফেলা, প্রচুর পরিমাণে পানিশূন্যতা, দেহে রক্তের অভাব—এই সমস্যাগুলোতে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়।

* অনেকেই বারবার পা ধুয়ে ফেলেন, কিন্তু ঠিকভাবে মোছেন না, পায়ের আঙুলের ফাঁকে পানি জমেই থাকে। এভাবে পানি জমে থেকে গোড়ালিসহ আঙুলের কোণাও ফেটে যায়।

* যাঁরা অতিরিক্ত কাদা, পানি, লবণাক্ত স্থান (যেমন ট্যানারি) বা পানিতে দীর্ঘ সময় কাজ করেন, তাঁদের গোড়ালি ফেটে যায়।

* অতিরিক্ত ওজন সম্পন্ন ব্যক্তিদেরও পা ফাটতে পারে। দীর্ঘদিন যাবৎ অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ থাকলেও শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ দুর্বল হয়ে যায়। তখন ত্বক ফাটতে পারে।

* আবার পারিবারিক বা বংশগত কারণেও অনেকের পা ফাটে। রক্তের সম্পর্কিত কারও পায়ের গোড়ালি অতিরিক্ত ফেটে যাওয়ার ইতিহাস থাকলে, তখন আপনারও পা ফাটতে পারে।

এ প্রসঙ্গে রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন বলেন, ‘অধিকাংশ মানুষের পায়ের গোড়ালি ফেটে যায় শীতকালে। আবার অনেকের সারা বছরই ফাটে। এই সমস্যা থেকে থেকে মুক্তি পেতে চাইলে বাইরে থেকে এসেই সাবান দিয়ে হাত পা ধুয়ে ফেলুন। তারপরে ময়েশ্চারাইজিং করার জন্য পেট্রোলিয়াম জেলি, লোশন বা কোনো ক্রিম লাগান। মরা কোষগুলো পেট্রোলিয়াম জেলিতে নরম হয়ে উঠে যায়।’

অনেকের আবার চামড়া উঠে রক্তপাত হয়। গোড়ালি বেশি ফেটে গেলে পুরু করে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে মোজা পরতে পারেন। এতে জেলি মোজাতে লেগে গেলেও ফাটা স্থানগুলোতে পৌঁছাবে।

এ ছাড়া কাঁচা হলুদের প্যাকও লাগাতে পারেন। কাঁচা হলুদ মুলতানি মাটি, আমন্ড ওয়েল—এই তিন উপকরণ দিয়ে প্যাক বানিয়ে পায়ে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। তারপরে নরম ব্রাশ দিয়ে পায়ের মরা চামড়াগুলো ঘষে আলতো করে তুলে ফেলুন। এই প্যাকটা ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন।

* পানিশূন্যতা, অপুষ্টি, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, ত্বকের কোনো সমস্যা থাকলে তা দূর করুন।

* প্রচুর পরিমাণে মৌসুমি ফল, শাকসবজি, পানির পরিমাণ বেশি এমন খাবার খান।

* পায়ের চামড়া টেনে তুলবেন না।

* বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখাটা ভীষণ জরুরি।


প্রথম আলো

Please Login to comment and favorite this Health Tip
Next Health Tips: 'খেজুর' এর সাহায্যে সৌন্দর্য সমস্যার সমাধান
Previous Health Tips: স্টিকার মারা ফল এর মানে জানেন?

আরও স্বাস্থ্য টিপ

পায়ে জ্বালাপোড়া?

পায়ের পাতা দুটি যেন মাঝেমধ্যে মরিচ লাগার মতো জ্বলে। কখনো সুঁই ফোটার মতো বিঁধে। ঝিম ঝিম করে বা অবশও লাগে। প্রায়ই এ ধরনের অনুভূতির কথা শোনা যায় রোগীদের মুখে। এ এক বিরক্তিকর ও যন্ত্রণাকর অনুভূতি। নানা কারণে, এমনকি মানসিক বিপর্যয়েও হতে পারে এই জ্বালাযন্ত্রণা। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে পায়ের... আরও দেখুন

কর্মক্ষেত্রে প্রতিদিনের ব্যায়াম

বিশ্বের প্রায় ৫০ শতাংশ মানুষ বিভিন্ন ধরনের দাপ্তরিক বা অফিসের কাজে নিয়োজিত থাকেন। এর মধ্যে ৪০ থেকে ৮০ শতাংশ মানুষই জীবনে কোনো না কোনো সময় হাড়, সন্ধি, পেশির সমস্যায় আক্রান্ত হন যা তাঁদের দাপ্তরিক কাজের সঙ্গে জড়িত। স্বাস্থ্যকর উপায়ে কী করে দাপ্তরিক কাজ সম্পাদন করা যায়, তা নিয়ে... আরও দেখুন

শীতে বাতের ব্যথায় কষ্ট

শীতকালটা বাতব্যথার রোগীদের একটু খারাপই কাটে। শীতে বা ঠান্ডায় বাতের প্রকোপ বাড়ে এমন কোনো প্রমাণ নেই, তবে এ সময় ব্যথার কষ্ট বাড়ে এটা সর্বজন স্বীকৃত। যুক্তরাষ্ট্রের এক সমীক্ষায় ৬৭ দশমিক ৯ শতাংশ বাতের রোগী শীতে ব্যথা বেড়ে যাওয়ার কথা বলেছেন। যদিও আমাদের দেশে শীত অত তীব্র নয়, তবু বাতব্যথার রোগীরা... আরও দেখুন

প্রতিদিন একটু বাদাম

বিভিন্ন রকমের বাদাম পাওয়া যায় বাজারে। বাদাম খুবই ভালো মানের উদ্ভিজ্জ আমিষ। আমিষ ছাড়াও বাদামে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণে অসম্পৃক্ত চর্বি ও প্রচুর ম্যাগনেশিয়াম। অসম্পৃক্ত চর্বি বা ওমেগা ৩ চর্বি হৃদ্‌বান্ধব। এতে কোনো ক্ষতি নেই বরং এটি উপকারী। হার্ভার্ড স্কুল অব হেলথের একটি বৃহৎ গবেষণায় প্রমাণিত... আরও দেখুন

দুর্বলতা কাটিয়ে উঠুন সহজ কিছু উপায়ে

দুর্বল ও ক্লান্ত অনুভব করা খুবই সাধারণ একটি সমস্যা। তখন চোখগুলো এমন ভারী  হয়ে আসে যে সাধারণ কাজটাও করা যায়না। যদি প্রতিদিনই এই সমস্যা হয় তাহলে কী হবে? আপনার উৎপাদনশীলতা কমে যাবে এবং আপনার পারফরমেন্সের উপর প্রভাব পড়বে। এছাড়াও এটি কিছু অন্তর্নিহিত রোগকেও নির্দেশ করে। কিন্তু অনেক রোগীদের... আরও দেখুন

দীর্ঘক্ষণ প্রস্রাব আটকে রাখলে যেসব সমস্যা হতে পারে

আপনি যখন কোন মিটিং-এ থাকেন অথবা কোন গুরুত্বপূর্ণ ইমেইল পড়তে থাকেন তখন প্রাকৃতিক ডাকে সারা দেয়াটা আপনার কাছে কম গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যায়। এছাড়াও আপনি হয়তো অফিসের টয়লেট ব্যবহার করতে অস্বস্তি বোধ করেন। বিশেষজ্ঞদের মতে আপনার কিডনির যত্ন নেয়ার অর্থই হচ্ছে আপনি কখন বিপদজনক বলয়ে প্রবেশ করছেন তা বুঝতে... আরও দেখুন

healthprior21 (one stop 'Portal Hospital')