Blog

কথা বলতে না পারা শিশুদের সাথে যোগাযোগের ২৩টি উপায়
26 June,13
বিষয়টি বাংলাতে পড়ুন

“শুধু কথা বলতে না পারার কারনে এটা মনে করা ঠিক নয় যে, সে আসলে কিছুই বলে না” – এ কথাটি ‘কথা বলতে না পারা’ বাচ্চার অভিভাবকের পক্ষ থেকে এটা সকলকে স্মরন করিয়ে দেয়া।
যোগাযোগ আসলে মানুষের মৌলিক চাহিদা। যা একজনের সাথে অন্যজনের সম্পর্ক তৈরী করে, অপরের সাথে নিজেকে যুক্ত করে, সিদ্ধান্ত গ্রহনে প্রভাব ফেলে - এমনকি পুরো জীবনযাত্রায়। যোগাযোগের ফলে সে তার অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে। যে সমাজে সে বাস করে সেই সমাজের একজন হিসাবে নিজেকে ভাবতে শেখে।
যেসব মানুষ কথা বলতে পারে না বা আধো আধো বলতে পারে, যোগাযোগের ক্ষেত্রে সুস্থ-স্বাভাবিক মানুষের মত তাদের চাহিদাও একই। কাজেই আমাদের এমন পদ্ধতি বের করতে হবে যাতে তারাও তাদের যোগাযোগ চাহিদাগুলো যথাযথভাবে পূরণ করতে পারে।
বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু ও প্রাপ্ত বয়স্কদের অভিভাবকদের দেয়া বাস্তব অভিজ্ঞতার আলোকে ‘নেটবাডি’ উপ্সথাপন করছে তেমনি কিছু পদ্ধতি। যা এ ধরনের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু বিশেষ করে কথা বলতে না পারা শিশুদের যোগাযোগ দক্ষতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে কার্যকরি ভূমিকা রাখতে সক্ষম।

১। সে যা করতে পারে তা’ যেন কোন অর্থ বহন করে
‘কেটি’ কথা বলতে পারে না, তবে সে হাত তালি দিতে পারে। তাই আমরা তাকে শিখিয়েছি যখন সে কোন বিষয়ে হ্যাঁ বলবে, তখন যেন সে হাত তালি দেয়। অর্থাৎ আমাদের কাছে তার এই হাত তালি দেয়াটা ইতিবাচক অর্থ বহন করে।

২। নিজেকে নিয়ে যান তার লেভেলে
খেলা করার ছলে তার সাথে কথা বলাটা অধিকতর সহজ যখন একে অপরকে সরাসরি দেখে। তাই তার সামনাসামনি বসুন, তার চোখে চোখ রাখুন। দেখবেন আপনি তার অনেক কিছুই খুব সহজে বুঝতে পারবেন।

৩। কি হচ্ছে সে সম্পর্কে তার সাথে কথা বলুন
‘এডি’ কথা বলতে পারে না আর বোঝার ক্ষমতাও সীমিত। তবে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ন যে, চারপাশে কী হচ্ছে সে সম্পর্কে তার সাথে কথা বলা যা হয়তো সে জানতে চাচ্ছে, কিন্তু প্রকাশ করতে পারছে না।

৪। আই  কনটাক্ট
আমি আমার কপালে কাঠিগুলো রাখি, উদ্দেশ্য হচ্ছে আমার ছেলে যেন সে দিকে তাকায়। আর এটা এ জন্য যে, যাতে সে আশেপাশের মানুষগুলোর মুখের দিকে তাকায়। এতে তারা হয়তো ভাববে আমাদের দিকে ছেলেটার পূর্ন মনযোগ আছে।

৫। ইশারা-ইঙ্গিত - যার অর্থ আছে
আমরা প্রতিটা ইশারা-ইঙ্গিতকেই একেকটা বিষয়ে যোগাযোগ করছে বলে মনে করি এবং আসলে এর মাধ্যমে আমরা বুঝে নেই যে ‘গ্যাবি’ কিছু বোঝাতে চাইছে বা বলতে চাইছে।

৬।  আয়না ব্যবহার
সরাসরি তাকানো বা চোখে চোখ রেখে তাকানোটা যদি তার কাছে আক্রমনাত্মক মনে হয় (যদিও আপনি আসলে তাকে সহযোগীতা করতে চেয়েছেন বা চান), সেক্ষেত্রে আয়না ব্যবহার করতে পারেন। এভাবে হয়তো সে আপনার চেহারা দেখতে বা আপনার সাথে যোগাযোগ করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করতে পারে।

৭। সে কী চায়য়? সংকেতের মাধ্যমে জানুন
যখন আমি বাইরে কোথাও যাই, আমার কথা বলতে না পারা ছেলেকে জিজ্ঞেস করি সে কী চায় বা তার জন্য কোনটা আনতে হবে। আমি তাকে একটা কিছু দেখিয়ে টোকা দিয়ে বলি এটা না ঐটা? সে তখন একটা বেছে নেয় এবং সেভাবেই তাকে সে জিনিসটা এনে দেই। আর এটা এখন আমরা তার সাথে যোগাযোগের সকল ক্ষেত্রে ব্যবহার করি।

৮। তার অন্যান্য প্রকাশভঙ্গিগুলোর অর্থ জেনে নিন
আপনার শিশুকে সুযোগ দিন যাতে সে নিজেকে প্রকাশ করতে পারে বিভিন্নভাবে যেমন নাচ, গান, ছবি আঁকা, রঙ করা, সেলাই করা, ড্রাম বাজানো, ডুগডুগি বা ঝুনঝুনি বাজানো ইত্যাদি। করতে দিন, যা সে করতে চায়। ভয় পাবেন না যদি সে ফ্লোরে বা কার্পেটের উপর শুয়ে পড়ে কিংবা তাকে শুইয়ে দিতে। তাদের মত করে পৃথিবীটাকে দেখুন।

৯। এটা হবেই বা হতেই হবে বা করতেই হবে, ব্যাপারটা এমন নয়
থেরাপিস্টরা প্রায়শঃই বলেন এ্যাসপারজার্স সিনড্রোমে আক্রান্ত শিশুদের সাথে সবসময় চোখে চোখ রেখে কথা বলবেন, চোখে চোখ রাখবেন। আমাদের মত যারা এ্যাসপারজার্স সিনড্রোমে আক্রান্ত তারা সাধারনতঃ আই কনটাক্টটাকে এড়িয়ে চলি। এতে সুবিধেটা হল অন্যে যখন কথা বলে তখন তার কথার প্রতি মনযোগ দেয়াটা আমাদের জন্য সহজ হয়। আমার ক্ষেত্রে কথা শুনে তথ্য বের করাটা এমনিতেই বেশ কষ্টকর। তদুপরি চোখের দিকে তাকালে একই সময়ে তার চোখের কোন সিগনাল হয়তো আমার মনযোগ অন্যদিকে প্রবাহিত করতে পারে।

১০। গান আর পাপেট শো
অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা সাধারনত অন্য লোকের সাথে যোগাযোগ করে না বা আই কনটাক্ট করতে পারে না। যদিও অনেক সময় তারা পাপেট কিংবা পোষা প্রানির সাথে যোগাযোগ করতে পারে – অল্প হলেও কথা বলতে পারে। আবার অনেক শিশু আছে যারা কথা বলে না বা অল্প অল্প বলে, কিন্তু তারা খুব সুন্দর গান গাইতে পারে এবং গান গাইতে তারা পছন্দও করে। হ্যাঁ, চাইলে পারস্পরিক যোগাযোগের জন্য তাদের এই বিশেষ গুনটি ব্যবহার করতে পারেন।

১১। গল্প তৈরী করুন
আমি আমার ছেলের ছবি আর কম্পিউটারের ক্লিপ আর্ট ছবি নিয়ে সাজিয়ে গল্প বানাই এবং সেটা কম্পিউটারে সংরক্ষন করে রাখি। আপনি মাইক্রোসফট অফিস থেকে ইচ্ছেমত ছবি বাছাই করে একটার পর একটা সাজিয়ে বানিয়ে ফেলতে পারেন গল্প। সেই সাথে লিখে ফেলুন আপনার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা আর গল্প যেমনটি ছবিতে সাজিয়েছেন। এরপর সেগুলো শোনাতে পারেন আপনার শিশুকে।

১২। ফ্লাশ কার্ড বানান
কথা বলে যোগাযোগ করতে না পারা ব্যক্তির পছন্দের সব জিনিসের ছবি তুলুন যেমন তার খেলনার ছবি, তার পরিবারের সদস্যদের ছবি, বিভিন্ন বস্তু – কাপ, বিস্কুট ইত্যাদির ছবি। এরপর তার সবচেয়ে পছন্দের জিনিসের ছবিগুলো আলাদা করুন। প্রিন্ট করুন। পোস্ট কার্ড সাইজের করে লেমিনেট করুন। সেখান থেকে তাকে দিন যেকোন তিনটি (একবারে তিনটির বেশি নয়)। এরপর তাকে তার সবথেকে পছন্দেরটি বেছে নিতে উৎসাহিত করুন পয়েন্টিং এর মাধ্যমে কিংবা স্পর্শের মাধ্যমে। অন্যদের জন্য উদাহরন হিসাবে রাখার জন্য ছবির পিছনে ছবির সাথে সম্পর্কিত কিছু চিহ্ন দিয়ে রাখতে পারেন।

১৩। সারপ্রাইজ কার্ড
আপনার যদি অটিজম কিংবা এ্যসপারজার্সে আক্রান্ত শিশু থাকে তবে হাতের কাছে কিছু সারপ্রাইজ কার্ড (বিস্ময়সূচক চিহ্ন সম্বলিত) রাখতে পারেন। কারন যেকোন সময়ে কিছু অনাকাংখিত পরিস্থিতি বা অবস্থার মুখোমুখি হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনার বাচ্চা যাতে ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে না পড়ে, বাইরে যেতে না চায়, সেজন্য সেই কার্ডগুলো দেখিয়ে (যেগুলোতে তার পছন্দের জায়গায় ভ্রমন বা সময় কাটানো পছন্দ) বলতে পারেন আমরা এখন যাচ্ছি ‘ক’, ‘খ’, বা ‘গ’ ...!

১৪। মোবাইলে তাৎক্ষনিক ছবি তোলা
যদি আপনার মোবাইলে ক্যামেরা থাকে তবে সেটা ব্যবহার করতে ভুলবেন না। তাৎক্ষনিকভাবে কিছু চমৎকার মূহুর্তের ছবি তুলে রাখুন। আর সেগুলো আপনার বাচ্চার সাথে যোগাযোগের টুল হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

১৫। মাকাটন ল্যাঙ্গুয়েজ সাইন
আমরা আমাদের ‘জো’ এর জন্য ‘মাকাটন ল্যাঙ্গুয়েজ সাইন’ ব্যবহার করে ভীষনভাবে খুশি। এই সাইন ব্যবহারের মাধ্যমে সে বলতে পারে সে কী চায় এবং আমরাও এই সাইন ব্যবহার করে আমাদের কথাগুলো তাকে বোঝাতে সহায়তা করি। যদিও এটা একটু সময়সাপেক্ষ। তবে বেশ কার্যকরি।

১৬। উদাহরন হিসাবে ইন্দ্রিয়গোচর বস্তু
যাদের শিখন অক্ষমতা বা লার্নিং ডিজ্যাবিলিটি আছে কিংবা সংবেদনশীলতায় ঘাটতি আছে, তাদের ক্ষেত্রে ‘উদাহরন হিসাবে কিছু ইন্দ্রিয়গোচর বস্তু’ ব্যবহার করা যেতে পারে। যাতে তারা সহজে তাদের চারপাশে কি হচ্ছে বা ঘটছে তা’ বুঝতে পারে। এধরনের কোন বস্তুকে প্রতীক হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন যখন কোন ব্যাপারে তার অংশগ্রহন করা উচিত বা জানা উচিত। যেমন কাটাচামচের ব্যবহার, গোসলে তোয়ালে নিয়ে যাওয়া ও ব্যবহার করা ইত্যাদি।

১৭। প্রোলোকিউ-টু-গো
এটা একধরনের যোগাযোগের এইড বা টুল। এতে একধরনের প্রতীক ব্যবহার করা হয়। এটি আপনার শিশুকে সামাজিকভাবে গ্রহনযোগ্য হতে সহায়তা করবে। যারা আইপ্যাড, আইপড, আইটাচ ইত্যাদি ব্যবহার করেন তারা এই এ্যপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে পারেন।

১৮। ওয়ার্ড বাবল (শব্দ বুদবুদ)
‘কেরী’ কার্টুন পছন্দ করে। আর তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম এটাই আমরা ব্যবহার করবো। আমরা বিভিন্নধরনের কার্টুন - সাথে স্পীচ বাবল ব্যবহার শুরু করলাম যাতে অনেক তথ্যই তার কাছে সহজবোধ্য হয়। আর এটা চমৎকার কাজ করছে।

১৯। যোগাযোগের পাসপোর্ট
হ্যাঁ! শুনতে যেমনই লাগুক, আসলে যোগাযোগ পাসপোর্ট হল এক পৃষ্ঠার একটি ডকুমেন্টের মত যা আপনার বাচ্চা সবসময় তার কাছে রাখবে বা তার কাছে রক্ষিত থাকবে। যাতে অন্য লোক সেটা দেখে বুঝতে বা জানতে পারে তার কমিউনিকেশনের ক্ষেত্রে কী কী অসুবিধা আছে এবং তার কী কী দরকার বা কীভাবে তার সাথে ব্যবহার করা উচিত। 

২০। যোগাযোগের বই এবং চার্ট
কোন কোন শিশুরা প্রতীক দেখে বা দিয়ে শিখে বা তাদের পছন্দ-অপছন্দ প্রকাশ করতে পারে। যেগুলো যোগাযোগের বই কিংবা চার্টে পাওয়া যায়। তারা তাদের মুষ্টি কিংবা আঙ্গুল বা কখনো কখনো চোখ বা মাথা দিয়ে কোন কিছু নির্দেশ কিংবা পয়েন্ট করতে সক্ষম। যোগাযোগের বই বা চার্টে এগুলোর সঠিক ব্যবহার সম্মন্ধে অনেক টিপস পেতে পারেন।

২১। কমিউনি-ব্যান্ড
আমার ছেলে ক্রনিক  Atheoid Quadriplegic Cerebral Palsy   তে আক্রান্ত এবং কথা বলতে পারে না। আমরা তার হ্যাঁ/না বলা বোঝাতে কমিউনি-ব্যান্ড ব্যবহার করি। সবুজ রিস্ট ব্যান্ড পরা হাত দিয়ে টোকা দেয়া, দোলানো, উপরে তোলা, হাত ঘোরানো ইত্যাদি দিয়ে হ্যাঁ সংকেত বোঝানো এবং লাল রিস্ট ব্যান্ড পরা হাত দিয়ে না বোঝানো যেতে পারে। এটা সবার জন্যই বোঝা খুব সহজ।

২২। পারসোনাল পোর্টফোলিও বা ব্যক্তিগত বৃত্তান্ত
পারসোনাল পোর্টফোলিও বা ব্যক্তিগত বৃত্তান্ত হল ব্যবহার উপযোগী একধরনের দলিল যা অন্যের কাছে আপনার শিশুকে তার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেবে বা তুলে ধরবে। বিশেষ করে যদি সে যোগাযোগে অক্ষম হয়। এটি শিক্ষক বা প্রোফেশনালদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়।

২৩। নিবিড় ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া
আমার ৭ ও ৫ বছরের দু’টি সন্তান আছে যারা স্পেকট্রামে আক্রান্ত। এদের সাথে আমাকে সবসময় লেগে থাকতে হয়। পারস্পরিক ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের সাথে মানসিক সুস্থতা নিয়ে এবং বাঁধাহীনভাবে যোগাযোগ করতে পারি।  

 

Make it favorite!

1 comments

mene - at 10 July,16

Nice

Leave a comment

 
healthprior21 (one stop 'Portal Hospital')